রূপচর্চায় কাঁচা হলুদ
রূপচর্চায় কাঁচা হলুদ


রূপচর্চায় কাঁচা হলুদ

হলুদ একটি ঔষধি গুণসম্পন্ন গাছ | প্রাচীন কাল থেকেই মানুষ হলুদ বিভিন্ন রূপচর্চার কাজে ব্যবহার করে আসছে | আজ আমরা জানবো কিভাবে রূপচর্চায় হলুদ ব্যবহার করা যায় ।

→বলিরেখা ও রোদে পোড়া দাগ দূর করতে সাহায্য করে :-

বয়স বাড়ার সাথে সাথে আমাদের চেহারায় বলিরেখা পড়ে যায় । আর এই বলিরেখা দুর করার প্রাকৃতিক ওষুধ হলো কাঁচা হলুদ । দুধের সরের সাথে কাঁচা হলুদ মিশিয়ে সপ্তাহে দুইদিন মুখে মাখলে এই বলিরেখা দূর হয়ে যাবে । অনেকেরই রোদে রোদে ঘুরার কারণে চেহারায় কালো ছাপ বা দাগ পরে যায় । এই দাগ ও দূর করতে পারে কাঁচা হলুদ । কাঁচা হলুদের সাথে মুসুর ডাল ও মধু মিশিয়ে সপ্তাহে দুইদিন মুখে লাগাবেন । এতে রোদে পোড়া দাগ বা ছাপ দুর হয়ে যাবে । 

→ব্রণ ও ব্রণের দাগ দূর করতে সাহায্য করে:-

কাঁচা হলুদে অ্যান্টিসেপটিক ও ব্যাক্টেরিয়া-রোধী উপাদান রয়েছে যা ব্রণ ও ব্রণের দাগ দূর করতে সাহায্য করে। যাদের ব্রণের সমস্যা আছে তারা সপ্তাহে দুইদিন নিম পাতার রসের সাথে হলুদ বাটা মিশিয়ে মুখে লাগাবেন । এতে ব্রণ দূর হয়ে যাবে । ব্রণ চলে যাওয়ার পর, অনেকেরই মুখে ব্রণের দাগ রয়ে যায়, এই দাগ ও দূর হয়ে যাবে। 

→ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে:-

ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করার অন্যতম একটি মাধ্যম হলো কাঁচা হলুদ । সপ্তাহে দুইদিন মসুর ডাল ও হলুদ একসাথে বেটে ত্বকে লাগাবেন । ১৫-২০ রাখার পর ধুয়ে ফেলবেন । এতে আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে । 

ত্বকের শুষ্ক ভাব দূর করতে সাহায্য করে:-

অনেকরই শুষ্ক ত্বকের সমস্যা রয়েছে । যাদের এই সমস্যাটি রয়েছে তারা কাঁচা হলুদের ফেইস প্যাক বানিয়ে লাগাতে পারেন । এক চামচ দুধ, এক চামচ বেসন, এক চামচ হলুদ ও আধা চামচ চন্দন গুঁড়ো একসাথে মিশিয়ে একটি প্যাক তৈরি করুন তারপর সেটা ত্বকে লাগান । ১৫ মিনিট রাখার পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন । এভাবে সপ্তাহে  দুইদিন লাগাবেন । এতে আপনার ত্বকের শুষ্ক ভাব দূর হয়ে যাবে ।

ত্বক মসৃণ করতে সাহায্য করে:-

কাঁচা হলুদ আমাদের ত্বককে কোমল ও মসৃণ করতে করতে সাহায্য করে । বেসন, টক দই, চালের গুঁড়ো ও কাঁচা হলুদ বাটা একসাথে মিশিয়ে একটি প্যাক তৈরি করুন । তারপর সেটা ত্বকে লাগান । ১৫-২০ রাখার পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন । এভাবে সপ্তাহে দুইদিন লাগাবেন । কিছুদিন এভাবে লাগানোর পরে দেখবেন ত্বক আগের চেয়ে অনেক মসৃন ও কোমল হয়ে গেছে ৷

→ত্বকের অবাঞ্ছিত লোম দূর করতে সাহায্য করে:

কাঁচা হলুদ আমাদের ত্বকের অবাঞ্ছিত লোম দূর করতে সাহায্য করে । এক চামচ বেসন, এক চামচ দুধ ও এক চামচ হলুদ বাটা একসাথে মিক্স করবেন । তারপর তা আপনার ত্বকে লাগাবেন । দশ মিনিট এর মতো রাখার পর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলবেন । এভাবে সপ্তাহে যেকোনো দুইদিন লাগাবেন । কিছুদিন পর দেখবেন ত্বকের অবাঞ্ছিত লোম আর দেখা যাচ্ছে না ।


রূপচর্চায় কাঁচা হলুদ
রূপচর্চায় কাঁচা হলুদ

→ডার্ক সার্কেল দূর করতে সাহায্য করে:-

কাঁচা হলুদ চোঁখের নিচের কালো দাগ বা ডার্ক সার্কেল দূর করতে সাহায্য করে । এক চামচ টক দই, এক চামচ হলুদ বাটা ও এক চামচ টমেটোর রস একসাথে মিক্স করে, তা চোঁখের চারদিকে ভালো ভাবে লাগাবেন । তারপর দশ থেকে পনের মিনিট রাখার পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলবেন । এভাবে সপ্তাহে দুইদিন লাগাবেন । এতে আপনার চোঁখের নিচের কালো দাগ বা ডার্ক সার্কেল দূর হয়ে যাবে ।

অ্যালার্জির সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে:-

অনেকেরই অ্যালার্জির সমস্যা রয়েছে । যাদের অ্যালার্জির সমস্যা রয়েছে তারা হলুদ ব্যবহার করতে পারেন । এক বালতি পানিতে হাপ-কাপ হলুদ বাটা দিয়ে তা ভালোভাবে মিশিয়ে নিবেন। তারপর তা দিয়ে গোসল করে নিবেন । এভাবে কিছুদিন গোসল করলে অ্যালার্জির সমস্যা দূর হয়ে যাবে ।

সতর্কতা:-

→ হলুদ ২০ মিনিটের এর বেশি কখনই লাগিয়ে রাখবেন না । কারণ হলুদ বেশিক্ষণ ত্বকে লাগিয়ে রাখলে ত্বক কালো হয়ে যাওয়ার সম্ভবনা থাকে ।

→ কাঁচা হলুদ কিছু না কিছুর সাথে ব্যবহার করবেন । শুধু কাঁচা হলুদ ব্যবহার করবেন না । 

→ হলুদ মুখে দেওয়ার আগে তা ঘাড়ে বা হাতে দিয়ে চেক করে নিবেন । যদি কোনো সমস্যা বা অসস্তি না হয় তাহলেই মুখে লাগাবেন । 

→ হলুদ রাতে ব্যবহার করাই উত্তম । যদি দিনের বেলায় ব্যবহার করেন তাহলে কখনই রোদে যাবেন না । কারণ হলুদ লাগিয়ে রোদে গেলে ত্বক পোড়ে যাবে । হলুদ সপ্তাহে দুই দিন এর বেশি ত্বকে লাগাবেন না । কারণ একনাগাড়ে বেশি দিন হলুদ লাগালে উপকার এর চেয়ে অপকার বেশি হবে ৷ তাই সাবধান ।


রূপচর্চায় কাঁচা হলুদ


Photo Credit- www.doschooling.com ( my own capture)

Post a Comment

Previous Post Next Post